কালীগঞ্জে খড়ের পাড়ায় দুর্বৃত্তর আগুন, দরিদ্র কৃষকের সর্বনাশ

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি : গাজীপুরের কালীগঞ্জে গভীর রাতে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে অসহায় হত দরিদ্র কৃষকের খড়ের পাড়া পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় ৭০ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার জাংগালিয়া ইউনিয়নের বরাইয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেন মোড়লের বাড়ীতে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, প্রতিদিনের ন্যায় রবিবার রাতে আনোয়ার হোসেন তার অটো রিক্সা গ্যারেজে চার্জে রেখে বাড়িতে ঘুমিয়ে পরে। পরে রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে আনোয়ারের স্ত্রী প্রাকৃতিক ডাকে বাহিরে যায়। বাহিরে গিয়ে তাদের খড়ের পাড়ায় দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখে ডাক-চিৎকার করেন। পরে এলাকাবাসীর সহযোগীতায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয়। এতক্ষণে আনোয়ার মোড়লের খড়ের পাড়া পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এলাকার কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়- আনোয়ার হোসেন একজন গরীব মানুষ। অটো রিক্সা চালিয়ে ছেলে-মেয়ে ও স্ত্রীকে নিয়ে অতি কষ্টে কাটছিল তার দিন। একটু সুখের আশায় এ বছর বেলাই বিলে ১০ বিঘা জমির বর্গা করেন। জমি আবাদ করতে গিয়ে কিছুটা ঋনে ঝড়িয়ে পড়ের তিনি। আশার ছিল খড় ও গরু বিক্রি করে ঋণের টাকা পরিশোদ করবে।

তার সাথে সত্রুতা থাকতে পারে কিন্তু পশুর খাবারের সাথে কিসের সত্রুতা। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী আনোয়ার হোসেন বলেন, আমি পেশায় একজন অটো রিক্সা চালক। আমার বাবার পৈত্রিক সম্পত্তি তেমন নেই বল্লেই চলে। এ বছর আমার মহল্লার কয়েকজনের প্রায় ১০ বিঘা জমি বর্গা নিয়ে আবাদ করি। এতে করে আমি কিছুটা ঋনে ঝড়িয়ে পড়ি।

আশা ছিল খড় বিক্রি করে এবং অটো চালিয়ে ঋণের টাকা পরিশোদ করবো। গত রাতে দুর্বৃত্তেরা আমার খড়ের পাড়াটি পুড়ে স্বপ্নকে ছাই করে দিয়েছে। ভুক্তভোগী আরও বলেন- সরকারের পক্ষ থেকে যদি কোন সহযোগীতা করেন তাহলে আমার এই ক্ষতি কাটিয়ে ছেলে-মেয়েদের নিয়ে দু’মুঠো ভাত খেতে পারবো।

এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা একেএম মিজানুল হক বলেন, এখানো পর্যন্ত আমার কাছে লিখিত কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইননানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।