আমানত রক্ষায় করণীয়

ক্বারী মুহাম্মদ শহিদুল্লাহ : আপনি যদি একজন শুদ্ধ মানুষ হতে চান, তাহলে পথ চলার ক্ষেত্রে কিছু শুদ্ধাচার মেনে চলুন। আর তা যদি আপনি পারেন, তবে দেখবেন চমৎকার এক জগতে প্রবেশ করেছেন। শুদ্ধ হওয়া বিষয়টি এমন নয় যে এটা আপনা আপনি হয়ে যায়। শুদ্ধ হওয়ার জন্যে আপনাকে এটা চর্চ্চা করতে হবে।

এটা অনেকটা ভালো সঙ্গীত শিল্পী বা ক্রীড়াবিদ হয়ে উঠার মতোই। সাফল্যের জন্যে তাদেরকে যেমন চর্চ্চা করতে হয়, শুদ্ধা মানুষ হওয়ার ব্যাাপরেও আপনাকে সেটা করতে হবে। আজ আমরা জানবো- আমানত রক্ষায় করণীয় কি? সেই সম্পর্কে-

– প্রয়োজন ছাড়া একজনের কথা আরেকজনের কাছে বলবেন না। বিশ্বস্ততার সাথে অন্যের গোপনীয়তা রক্ষা করুন।

– কারো কোনোকিছু ব্যবহারের পর তা সযত্নে রাখুন।

– কারো কাছ থেকে কিছু নিয়ে থাকলে তা মনে করে সময়মতো ফিরিয়ে দিন।

– কাউকে প্রতিশ্রুতি দেয়ার আগে ভাবুন। প্রতিশ্রুতি দিলে অবশ্যই তা রক্ষা করুন। আপাতত রক্ষা করা সম্ভব না হলে দুঃখ প্রকাশ করুন।

– অন্যের চিঠি, ডায়েরি, এসএমএস পড়বেন না; এমনকি দেখা/ তাকানো থেকেও নিজেকে সংযত রাখুন।

– বিনা অনুমতিতে কারো জিনিস ধরা, ব্যবহার করা ও সরানো থেকে সচেতনভাবে বিরত থাকুন।

– কেউ কিছু পড়তে থাকলে তা টেনে নেয়া বা লিখতে থাকলে উঁকি দেয়া থেকে বিরত থাকুন।

– আমানতের প্রতি বিশ্বস্ত হোন। যে জিনিস যেভাবে নিয়েছেন তা সেভাবেই ফেরত দিন।